21 C
Kolkata
Tuesday, January 26, 2021
Home Uncategorized যেসব ব্লকবাস্টার সিনেমা গুলি শাহরুখ খান ফিরিয়ে দিয়েছিলেন

যেসব ব্লকবাস্টার সিনেমা গুলি শাহরুখ খান ফিরিয়ে দিয়েছিলেন

News Desk: বলিউডের বাদশা শাহরুখ খান ৮০ টিরও বেশি হিন্দি সিনেমায় অভিনয় করেন|

তিনি বহু পুরস্কার জিতেছেন যার মধ্যে ১৪টি রয়েছে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড। এর মধ্যে আটটি সেরা অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেছেন|

হিন্দি সিনেমায় এই অসাধারণ কৃতিত্বের জন্য ভারত সরকার শাহরুখ খানকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করেন।

ভারত তথা বিশ্বের শাহরুখ খানের অগণিত ভক্ত রয়েছে

srk-taking-padmasree-award
শ্রী শাহরুখ খান ডক্টর এপিজে আবদুল কালামের থেকে পদ্মশ্রী পুরস্কার গ্রহণ করছেন image credit:wikipedia.org

বলিউড এবং হলিউডের সেরা অভিনেতার বিচারে তিনি দ্বিতীয় স্থান লাভ করেন।

আয়ের পরিমান ও দর্শকের পরিমাণের দিক থেকে তাকে বিশ্বের সবথেকে সফলতম অভিনেতা হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে|

শাহরুখ খান ১৯৯২ সালে দিওয়ানা সিনেমাটির মাধ্যমে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন| এই সিনেমাটির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ নবাগত অভিনেতা পুরস্কার অর্জন করেন|

তারপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি “কিং অফ রমান্স” শাহরুখ খানকে| একের পর এক হিট ছবি তিনি উপহার দিয়েছেন ভক্তদের|

তার মধ্যে রয়েছে দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে(১৯৯৫), দিল তো পাগল হে(১৯৯৭), কুছ কুছ হোতা হ্যায়(১৯৯৮), মোহাব্বাতে(২০০০), k3g(২০০১) এবং আরো অনেক|

শাহরুখ খান ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে খলনায়ক চরিত্রে অভিনয় করেছেন যার মধ্যে ডর(১৯৯৩), বাজিগর(১৯৯৩),

আঞ্জাম ছবি গুলির মাধ্যমে তিনি খ্যাতি অর্জন লাভ করেন|

তাঁর শেষ অভিনীত সিনেমা টি আনন্দ এল রাই এর জিরো (২০১৮)| যদিও সিনেমাটি বক্স অফিসে তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি কিন্তু শাহরুখ খানের অভিনয় ছিল প্রশংসনীয়

এই ২৭ বছরে তিনি অগণিত সিনেমা ভক্তদের উপহার দিয়েছেন|

কিন্তু অন্যান্য অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মত শাহরুখ খানও কিছু সিনেমা প্রত্যাখ্যান করেন যেগুলো পরে ব্লকবাস্টার হিসেবে বিবেচিত হয়|

তাহলে চলুন দেখে নিই সেইসব সুপারহিট সিনেমা যেগুলি শাহরুখ খান করতে রাজি হননি|

১. কাহোনা পেয়ার হে (২০০০)

kahona payar hai

কাহোনা পেয়ার হে ২০০০ সালে হৃত্বিক রোশন এবং আমিশা প্যাটেল অভিনীত সিনেমাটি মুক্তি পায়|

ঋত্বিক রোশনের জায়গায় শাহরুখ খানকে এই সিনেমাটির জন্য ভাবা হয়েছিল| যেহেতু শাহরুখ খান রাকেশ রোশনের সাথে অনেক সিনেমায় কাজ করেছেন|

হৃত্বিক রোশন গল্পটি পড়ে তার বাবা রাকেশ রোশন কে বুঝিয়েছিলেন এই গল্পটির জন্য একজন নতুন অভিনেতার প্রয়োজন।

রাকেশ রেশন ও রাজি হয়ে যান এবং হৃত্বিক রোশন কে দিয়ে এই সিনেমাটির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করান| পরেরটা ইতিহাস|

সুদর্শন চেহারার ঋত্বিক রোশনের অসাধারণ অভিনয়, এবং নজরকাড়া নাচের ভঙ্গি দর্শকদের মনে আলাদা জায়গা করে নেয়|

সিনেমাটি ব্লকবাস্টার হিট এ পরিণত হয়

২.লাগান (২০০১)

lagaan

২০০১ সালে অস্কার মনোনীত লাগান সিনেমাটি মুক্তি পায়| লাগান সিনেমাটি ভারতে বক্সঅফিসে বড় সাফল্য লাভ করে সব রেকর্ড ভেঙে দেয়।

আপনারা কি জানেন এই সিনেমার ভুবন চরিত্রটির জন্য প্রথমেই শাহরুখ খানকে ভাবা হয়েছিল|

হ্যাঁ ঠিকই শুনেছো পরিচালক আশুতোষ গোয়ারিকর ভুবন চরিত্রটির জন্য শাহরুখ খানকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন|

পরবর্তী সময় আমির খান সেই চরিত্রে অভিনয় করেন| লাগান সিনেমা টি তাঁকে সাফল্যের সর্বোচ্চ শিখরে নিয়ে গেছে|

৩. মুন্নাভাই এমবিবিএস(২০০৩)

২০০৩ সালে মুক্তি পাওয়া মুন্নাভাই এমবিবিএস এককথায় অনবদ্য সিনেমা| সিনেমাটি হাস্যকৌতুক।

সঞ্জয় দত্ত আরশাদ ওয়ার্সি বমান ইরানি এবং গ্রেসিসিং নিজেদের সেরা অভিনয় করেছিলেন এই সিনেমাটিতে|

বিধু বিনোদ চোপড়া মুন্নাভাই চরিত্রটির জন্য শাহরুখ খানকে সার্কিটের চরিত্রের জন্য সঞ্জয় দত্তকে ভেবেছিলেন|

কিন্তু শাহরুখ খান শারীরিক অসুস্থতার জন্য এই সিনেমাটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন|

৪. রং দে বসন্তী(২০০৬)

রাং দে বাসান্তি সিনেমাটি ২০০৬ সালে মুক্তি পায়| সিনেমাটিতে মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন আমির খান, শারমান যশি, আর মাধবন, কুনাল কাপুর, এবং সোহা আলী খান

প্রথমে শাহরুখ খানকে এয়ারফোর্সের পাইলট হিসেবে অভিনয়ের জন্য প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল|

পরে সেই সেই চরিত্রে অভিনয় করেন আর মাধবন| শোনা যায় সিনেমাটিতে শাহরুখ খান আমির খানের প্রতিদ্বন্দী হতে চাননি|

রং দে বসন্তী অন্যতম শ্রেষ্ঠ সিনেমা হিসেবে বিবেচিত হয়

৫. যোধা আকবর (২০০৮)

jodhaa_akbar
twitter.com/AshGowariker/

যোধা আকবর সিনেমাটি ২০০৮ সালে মুক্তি লাভ করে| সিনেমাটিতে মুখ্য অভিনয় ছিলেন হৃত্বিক রোশন এবং ঐশ্বর্য রায়|

আশুতোষ গোয়ারিকর স্বদেশ সিনেমাটি করার পর আবারো শাহরুখ খানের সাথে কাজ করতে চেয়ে ছিলেন|

যোধা আকবর সিনেমাটিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করার জন্য শাহরুখ খানকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন| কিন্তু শাহরুখ খান সিনেমাটি করতে রাজি হননি কারণ হিসেবে তিনি বলেন পরিবারকে সময় দিতে চান এবং তার শুটিং এর লোকেশন টা ঠিক পছন্দ হয়নি|

পরবর্তীকালে হৃত্বিক রোশন আকবরের ভূমিকায় স্বপ্নের মত অভিনয় করেন এবং ঐশ্বর্য রায় ছিলেন তাঁর যোধা| সিনেমাটি বক্স অফিসে অতুলনীয় ভাবে সাফল্য লাভ করে|

৬. স্লামডগ মিলিয়নিয়ার (২০০৮)

স্লামডগ মিলিয়নিয়ার সিনেমাটি ২০০৮ সালে মুক্তি লাভ করে|

সিনেমাটি আটটি অ্যাক্যাডেমি আওয়ার্ড জিতেছিল এবং বিশ্বে এক অনবদ্য নজির স্থাপন করেছিল|

পরিচালক ড্যানি বয়েল সিনেমাটির জন্য শাহরুখ খানকে কুইজ মাস্টার হিসেবে ভেবেছিলেন।

শোনা যায় পরিচালক ড্যানি বয়েল শাহরুখ খানের মান্না দের বাড়িতে গিয়েছিলেন কিন্তু কোনো কারণবশত তার সাথে সাক্ষাৎ হতে পারে নি|

পরবর্তী সময়ে এই চরিত্রটি অনিল কাপুর অভিনয় করেন| এবং ভারত তথা বিশ্ব সিনেমায় এক অনবদ্য নজির স্থাপন করেন

৭. থ্রি ইডিয়েটস (২০০৮)

শাহরুখ খান যে সিনেমাটি করতে না পারার জন্য সবথেকে বেশি দুঃখ প্রকাশ করেন সেটি হল থ্রি ইডিয়টস|

থ্রি ইডিয়েট সিনেমা টি ২০০৮ সালে মুক্তিলাভ করে

সিনেমাটিতে রেঞ্চোর ভূমিকায় অভিনয় করার জন্য শাহরুখ খানকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন রাজকুমার হিরানি|

কিন্তু তিনি অন্য কাজে ব্যস্ত থাকায় এবং সময় দিতে না পারায় এই প্রস্তাবটি তিনি প্রত্যাখ্যান করেন|

প্রসঙ্গত ২০১৬ সালে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি থ্রি ইডিয়েট সিনেমা টি না করতে পারার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন এবং নিজেকে “ফোর্থ ইডিয়ট” বলে সম্বোধন করেছিলেন|

পরবর্তী সময়ে আমির খান মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন| এবং থ্রি ইডিয়টস’-এর বক্সঅফিসে সাফল্যের কথা সবারই জানা|

৮. রোবট (২০১০)

পরিচালক শংকর প্রথমে শাহরুখ খানকে এই সিনেমায় মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করার জন্য প্রস্তাব দিয়েছিলেন| কিন্তু শাহরুখ খানের স্ক্রিপ্ট পছন্দ না হওয়ায় এই প্রজেক্ট থেকে সরে দাঁড়ান|

দ্বিতীয়তঃ শাহরুখ খান চেয়েছিলেন সিনেমার ভি এফএক্স গ্রাফিক্স টি রেড চিলিজ এন্টারটেইনমেন্ট থেকে হোক কিন্তু

পরিচালক শংকর চেয়েছিলেন ভিএফক্স টি হলিউড এর একটি স্টুডিও থেকে হোক।

দুজনের মতের মিল না হওয়ায় এই প্রোজেক্ট টি সোম্ভব হয় ওঠেনি

জানেন মাধুরী দীক্ষিত কেন সাজেন মুভিটি করতে রাজি হয়েছিলেন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read