Homeceleb lifeএকসময় পেটের দায়ে টেবিলে খাবার সার্ভ করতেন নোরা ফতেহি!!! জানুন বিস্তারে!!

একসময় পেটের দায়ে টেবিলে খাবার সার্ভ করতেন নোরা ফতেহি!!! জানুন বিস্তারে!!

বর্তমান যুগে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম ট্যালেন্টেড অভিনেত্রী হলেন নোরা ফতেহি

তিনি তাঁর নাচের ছন্দে কাবু করেছে গোটা দেশকে।

আর সত্যি বলতে তিনি দুর্দান্ত যে নাচ করেন এই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

তাই এখন বলিউডে কোন আইটেম গানে নাচ করার জন্য পরিচালকদের প্রথম পছন্দ হলেন নোরা ফাতেহি।

এই মুহূর্তে তিনি জনপ্রিয়তায় একেবারে শীর্ষে রয়েছেন।

https-newsbookra-com-once-nora-fatehi-used-to-serve-food-on-the-table-because-of-living-her-life-learn-in-details
Source : Facebook

তাঁর জনপ্রিয়তা এতটাই বেশি যে তাকে সবাই এক নামে চেনে।

তবে এই সাফল্য কিন্তু কারোর জীবনে রাতারাতি চলে আসে না। এর ব্যতিক্রম নন এই অভিনেত্রীও।

আজ যে তিনি সাফল্যের চূড়ায় রয়েছেন তার পেছনে রয়েছে এক অজানা কাহিনী।

তাঁর জীবনে এমন একটি সময় ছিল যখন টাকা উপার্জন করার জন্য,

এবং জীবন যাপন করার জন্য রেস্তুরায় ওয়েটারের হিসেবে কাজ করেছিলেন তিনি।

https-newsbookra-com-once-nora-fatehi-used-to-serve-food-on-the-table-because-of-living-her-life-learn-in-details
Source : Facebook

তবে এর জন্য কখনও আফসোস করেননি তিনি আজও নেই বলে তিনি জানিয়েছেন।

নোরার মতে প্রত্যেকটা কাজেই সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানিয়েছেন,

বিনোদন জগতে পা রাখার আগে ১৬ বছর বয়স থেকে ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত ওয়েট্রেস হিসেবে কাজ করেছিলেন তিনি।

এই নিজের জীবনে এই অভিজ্ঞতা দিয়ে তিনি বুঝেছেন একজন ওয়েট্রেস হিসেবে কাজ করা বেশ কঠিন।

ওয়েট্রেস হিসেবে কাজ করতে গেলে যে যোগ্যতা লাগে সে বিষয়ে বলতে গিয়ে নিজের পুরনো স্মৃতির ডালি খুলে বসলেন নোরা।

Source : Facebook

এরপরই অভিনেত্রী এই কাজের যোগ্যতার প্রসঙ্গে বলেন,

‘এই কাজের জন্য একজন ব্যক্তির প্রয়োজন হলো ভালো কমিউনিকেশন স্কিল,

একই সাথে থাকতে হবে ভালো ব্যক্তিত্বের অধিকারী, দ্রুত নিজের কাজ সম্পন্ন করতে হবে,

ভীষণ ভালো স্মৃতি শক্তির প্রয়োজন এই কাজে।’

Source : Facebook

তিনি আরো জানান, ‘অনেক সময় খারাপ গ্রাহকদের সম্মুখীন হতে হয় আর এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

এই সেই ক্ষেত্রে সব রকমের পরিস্থিতিকে সামলে নেওয়ার ক্ষমতা থাকা প্রয়োজন রয়েছে।’

নোরা আরো বলেন, ‘তবে এটা সত্যি যে সেই সময় আমার অর্থ উপার্জন করার একটু তাড়া ছিল।

এটি একমাত্র উপায় ছিল যেটির মাধ্যমে আমি পাশাপাশি কিছু কাজ করার সাথে এটির মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারি।

আসলে ব্যাপারটা হল এটি হল আমাদের কানাডার প্রচলিত একটি সংস্কৃতি।

ওখানে প্রত্যেকেই স্কুলে যাওয়ার পাশাপাশি চাকরিও করেন।’

আরো পড়ুন : চুম্বন থেকে শুরু করে হোটেলের ঘরে একসাথে রাত কাটানো; রোহিত শর্মার সম্পর্কে সমস্ত কথা প্রকাশ করলেন তাঁর প্রাক্তন প্রেমিকা!!

RELATED ARTICLES

স্কুলে ‘সেক্স এডুকেশন’এর অভাব! ‘বেশ্যালয় কি?’ প্রশ্ন লারা দত্ত-...

জিজ্ঞাস্য প্রচুর লারা দত্তর কন্যার সায়রার। ছোট্ট সায়রা চার বছর বয়সেই ‘ডিভোর্স’ শব্দের মানে...

রাত্রে পার্টি তাই সকাল থেকে মেক আপ করতে ব্যস্ত...

রাত্রে পার্টি তাই সকাল থেকে মেক আপ করতে ব্যস্ত এই ছোট্ট মেয়েটি। পার্টি বলে...

‘হয় আমি, না হয় মটন’!! নিরামিষাশী বরের আজব দাবি...

'হয় আমি, না হয় মটন'!! নিরামিষাশী বরের আজব দাবি নতুন বউয়ের কাছে। খাসির মাংস...

রাত্রে পার্টি তাই সকাল থেকে মেক আপ করতে ব্যস্ত...

রাত্রে পার্টি তাই সকাল থেকে মেক আপ করতে ব্যস্ত এই ছোট্ট মেয়েটি। পার্টি বলে...

‘হয় আমি, না হয় মটন’!! নিরামিষাশী বরের আজব দাবি...

'হয় আমি, না হয় মটন'!! নিরামিষাশী বরের আজব দাবি নতুন বউয়ের কাছে। খাসির মাংস...

বাদাম বিক্রেতার পরে এবার ভাইরাল হল মুর্শিদাবাদের খাজা বিক্রেতার...

এবার বাদাম বিক্রেতার পর ভাইরাল হল মুর্শিদাবাদের খাজা বিক্রেতার কবিতা। মাত্র দিন কয়েক আগেই নিজের...