Advertisement ggg
HomeEntertainmentMovie reviewপ্রশংসার ঝড় তুললো ‘জয় ভীম’, রীতিমতো ছবির শেষে ভাষা হারিয়ে ফেলছে দর্শকমহল

প্রশংসার ঝড় তুললো ‘জয় ভীম’, রীতিমতো ছবির শেষে ভাষা হারিয়ে ফেলছে দর্শকমহল

ভারত ও ইন্ডিয়া যেন একই দেশের হৃদয়ে লুকিয়ে আছে ভিন্ন দুই সত্তা। শুধু ভারত কেন শঙ্খ ঘোষ লিখেছিলেন “এ কলকাতার মধ্যেও লুকিয়ে আছে আর এক কলকাতা” ।’জয় ভীম’ (Jai Bhim) দেখতে বসলে এই কথাটি একবার নয় বার বার জাগান দিয়ে উঠবে প্রতিটা রোমে রোমে।সেনগানি ও রাজাকান্নুদের নিয়ে তৈরি এ কাহিনী দেখলে বোঝা যাবে আধুনিকতার মোড়কে ঢাকা ইন্ডিয়াতে লুকিয়ে আছে অন্য এক শাশ্বত ভারতবর্ষের অন্য দুনিয়া।যদিও একাহিনী গত শতাব্দীর শেষ দশকের। তবুও মাঝের এই আড়াই দশকের প্রতিচ্ছবি খুব বেশি বদলেছে কি !

গত ২রা নভেম্বর আমাজন প্রাইমে (Amazon Prime) এ মুক্তি পায় ‘জয় ভীম’। তার কিছুদিন পরই মুক্তি পায় ‘সূর্যবংশী’।হেলিকপ্টার থেকে অক্ষয় কুমারের নেমে আসার দৃশ্যে হাততালির বান ডেকেছে দর্শকমহলের। রহিত শেট্টির সেই টিপিক্যাল ফার্স্ট ক্লাস মশালা মুভি যেখানে পুলিশ এক অনন্ত ক্ষমতাধর মসিহা স্বরূপ।আর অন্যদিকে একই সময়ে মুক্তি প্রাপ্ত ‘জয় ভীম’ ছবিতে সেই পুলিশেরই এক ভিন্নতর রূপ দেখা গেছে।প্রভাবশালীদের কাঠের পুতুল হয়ে আইনকে হেলায় হাতে তুলে নিতে সামান্যতম দ্বিধাও নেই সেই পুলিশকর্মীদের।

তবে কেবল পুলিশি অত্যাচারের কাহিনি নয় এছবি। রীতিমতো সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ‘জয় ভীম’ ছবি প্রান্তিক ভারতবর্ষের মানুষের রক্ত ঘাম অসহায়তার প্রতিচ্ছবির আখ্যান। এই ছবির আসল আকর্ষণ কিন্তু নাগরিক সভ্যতা থেকে বহু দূরে অবস্থিত প্রান্তিক ভারতবর্ষের মানুষদের রক্ত-ঘাম-অসহায়তার মরমি আখ্যান। রাজাকান্নু ও সেনগানির সংসারে এক নতুন অতিথি আসতে চলেছে । নিচু জাতের প্রতিনিধি এই দুই মানব-মানবীর নেই কোনও নিজস্ব জমি , নেই কোনো আবাস এমনকি রেশন কার্ড ভোটার কার্ড পূর্যন্ত নেই।নিজস্ব ভূমি, স্থায়ী আবাস। রাতের অন্ধকারে তাদের একান্ত মুহূর্তে হঠাৎই ভেঙে পড়ে ঘরের দেওয়ালের একাংশ। তবু, এই হতদারিদ্রের মধ্যেও তারা অপেক্ষায় থাকে সুদিনের।

কিন্তু বাস্তবটা হয় ঠিক উল্টো গ্রামের এক ধনী ব্যক্তির বাড়ি থেকে গয়না চুরির মূল অভিযোগের স্বীকার হয় নির্দোষ রাজাকান্নু। ক্ষমতাশালী ব্যক্তিদের জোড়ে তার ওপর প্রভাব বিস্তার করতে থাকে প্রশাসন।জেলে রাজাকান্নু, তার ভাই ইরুটাপ্পান ও আরেক সঙ্গী মউসা কুট্টির উপরে পুলিশের প্রবল অত্যাচারের দৃশ্য দেখা যায় ছবিতে।এমনকি বাদ যায় না অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী সেনগানিও।ছবির দীর্ঘ সময় জুড়ে দেখা যায় লকআপে পুলিশি নির্যাতনের ভয়াবহ দৃশ্য।সে দৃশ্য দেখলে গা শিউরে উঠবে।প্রান্তিক মানুষগুলির নির্মম কাহিনী ছুঁয়ে আসেন পরিচালক টি জে নান্নেভাল। এছাড়া নজর কাড়েও চুড়ান্ত অভিনয় দক্ষতা।

তবে ছবিতে কয়েকটি দৃশ্যে বাণিজ্যিক ছবির মেজাজ বেশ ফুটে ওঠে। যেমন চন্দ্রুর আবির্ভাবের মুহূর্তে যেভাবে ব্যারিকেড টপকে এগিয়ে আসার দৃশ্য,তা যেন ছবির চরিত্রের সঙ্গে একেবারেই খাপ খায় না। এমন মুহূর্ত আরও অনেক আছে। কেবল সেই অংশগুলি বাদ দিলে ‘জয় ভীম’ প্রান্তিক ভারত বাসীর মর্মান্তিক জীবনের প্রতিচ্ছবি ফুটিয়ে তোলে।সম্পাদনা হোক বা সিনেমাটোগ্রাফি, ‘জয় ভীম’ সর্বত্রই নিখুঁত।

RELATED ARTICLES

জেনেনিন কোনো রকম কেমিক্যাল ছাড়া ঘন চাপ দাড়ি পাওয়ার...

চুল বা দাড়ি যদি কোনো কারণে পাতলা হয়ে যায় বা উঠে যায় বা যদি...

সঠিক পাত্রীর সন্ধানে চিন্তিত ? জেনেনিন জ্যোতিষশাস্ত্র মতে কোন...

জীবনে সুখী শান্তি বজায় রাখতে নারী সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। একজন ভবঘুরে ,...

‘এসবের জন্য দায়ী OMICRON’, চিঠি লিখে স্ত্রী-ছেলে-মেয়েকে খুন করে...

ওমিক্রনের ভয়ে তটস্থ বিশ্ব দেশে একের পর এক ছড়িয়ে পরছে আক্রান্তের সংখ্যা।এরই মধ্যে চাঞ্চল্য...

Must Read

জেনেনিন কোনো রকম কেমিক্যাল ছাড়া ঘন চাপ দাড়ি পাওয়ার...

চুল বা দাড়ি যদি কোনো কারণে পাতলা হয়ে যায় বা উঠে যায় বা যদি...

সঠিক পাত্রীর সন্ধানে চিন্তিত ? জেনেনিন জ্যোতিষশাস্ত্র মতে কোন...

জীবনে সুখী শান্তি বজায় রাখতে নারী সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। একজন ভবঘুরে ,...

‘এসবের জন্য দায়ী OMICRON’, চিঠি লিখে স্ত্রী-ছেলে-মেয়েকে খুন করে...

ওমিক্রনের ভয়ে তটস্থ বিশ্ব দেশে একের পর এক ছড়িয়ে পরছে আক্রান্তের সংখ্যা।এরই মধ্যে চাঞ্চল্য...