Homenews deskবঙ্গের জামাইয়ের পাতে এইবার ওড়িশার ইলিশ

বঙ্গের জামাইয়ের পাতে এইবার ওড়িশার ইলিশ

মাছ ছাড়া বাঙালির দিন চলেনা। আবার সেখানে জামাইষষ্ঠী হলে তো কোনো কথাই নেই।

  জামাইষষ্ঠীতে এইবার বাঙালীর পাতে পড়তে চলেছে ওড়িশার ইলিশ । যতই দাম হোক ওইদিন ইলিশ মাছ জামাইয়ের পাতে থাকতেই হবে ।

তাতেই জামাই শাশুড়ির মুখে হাসি ফুটবে।

ঘূর্ণিঝড় যশের পর থেকে অগ্নিমূল্য বাজার দর। জ্যোতি আলু ১৪-১৭ টাকা প্রতি কিলো (পাইকারি বাজার দর প্রতি কিলো ৮-১২ টাকা),

চন্দ্রমুখী আলু ১৮-২০ টাকা কিলো (পাইকারি বাজার দর প্রতি কিলো ১২-১৫ টাকা)। জ্যোতি আলু ১৪-১৭ টাকা প্রতি কিলো (পাইকারি বাজার দর প্রতি কিলো ৮-১২ টাকা), চন্দ্রমুখী আলু ১৮-২০ টাকা কিলো (পাইকারি বাজার দর প্রতি কিলো ১২-১৫ টাকা)।

রুই মাছ (গোটা) প্রতি কেজি ১৮০-২০০ টাকা, রুই মাছ (কাটা) প্রতি কেজি ২২০-২৫০ টাকা,

কাতলা মাছ (গোটা) প্রতি কেজি ২৫০-২৮০ টাকা, পাবদা ৩০০-৪০০ টাকা ,পার্শে ২৫০-৩০০ টাকা।

এরই মধ্যে বাঙালীর মুখে হাসি ফোটাতে জামাইষষ্ঠীর আগেই ওড়িশা থেকে 

দিঘার বাজারে এলো  ৩০০ গ্রাম থেকে প্রায়  এক কেজি ওজনের দেড় টন ইলিশ।

কেন্দ্রের নির্দেশানুসারে এখন মৎস্য শিকার বন্ধ। ১৫ এপ্রিল থেকে ১৪ জুন পর্যন্ত মৎস্য শিকার করা যাবেনা।এইসময় পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি ,

এগড়া সহ বিভিন্ন জায়গায় ইলিশের দেখা মিলল।  তা পরিমানে কম হলেও দামে আকাশ ছোঁয়া।

এই মাছগুলি প্রায়  ১০০০-১৬০০ টাকা প্রতি কিলো বিক্রি হয়েছে। তাই জামাই আদরে ঘরে ইলিশ আনতে কপালে ভাঁজ পরতে পারে মধ্যবিত্ত শ্বশুরদের।

এই নিয়ে দিঘার মৎস্যজীবীরা  ক্ষোভ প্রকাশ করে।

তাহলে কিভাবে আসলো  এই ইলিশ?

গোপন সূত্রে জানা যায় যে, মূলত ওড়িশার ধামরা ,কশাফলি ও বলরামগাড়ি এলাকার এই ইলিশ।

ওড়িশার মৎস্যজীবীরা কেন্দ্রের কথা মানছেন বলে দাবি করেছেন রাজ্যের মৎস্যজীবীরা। তবে রাজ্যের মৎস্যজীবীরা মনে করছেন ১৫ তারিখের পর জামাইষষ্ঠী হলে টাটকা মাছ শ্বশুররা পেতে পারেন।

তারা এও মনে করছেন যে এইবার বৃষ্টি কম হওয়ায় হয়তো ইলিশের ফলন ভালো হয়নি ।তবে বোঝা যাবে তা সমুদ্রে গেলে।  কিন্তু তারও দেরী হতে পারে।

দিঘার এক মৎস্যজীবী জানিয়েছেন , “এটা ইলিশের জননের সময়। তাই মাছ ধরায় নিষেধ করেছে কেন্দ্র।তাই নিয়ম না মানলে ওড়িশারই ক্ষতি হবে। “

ন্যাশনাল ফিশ ওয়ার্কার্স ফোরামের সম্পাদকও এই ঘটনার চূড়ান্ত নিন্দা করেন এবং বলেন “সামনে বর্ষা। ইলিশ ধরার মরসুম।

তার আগে এভাবে ইলিশ শিকার আশঙ্কার। যে উদ্দেশ্য নিয়ে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা বহাল হয়েছে এর ফলে তা বেকার হয়ে যাবে।

আমরা সাংগঠনিক ভাবে এর বিরুদ্ধে ওড়িশা সরকারের কাছে চিঠি লিখছি।’’

আরও পড়ুন: “যে বন্ধু, বিদায়!” তারাদের জগতে ভালো থাকবেন

RELATED ARTICLES

রেড কার্পেটে মুখ থুবড়ে পরতে গিয়ে একটুর জন্য বাঁচলেন...

বেশ কিছুদিন আগে স্বামীর পর্ন ভিডিয়ো তৈরির অভিযোগ লাইমলাইট থেকে নিজেকে দূরে রেখেছিলেন বলিনেত্রী...

নরবলি কি ? এর ইতিহাস বা কি ছিল ?...

আমরা পৌরাণিক কাহিনী বা বিভিন্ন রূপকথার গল্পে নরবলির কথা শুনেছি । বর্তমানে এর প্রচলন...

শক্তিগড়ের ল্যাংচা খেয়েছেন তো ! জানেন এর জনপ্রিয়তার ইতিহাস...

অতিথি আপ্রায়ন থেকে বিদায় সবেতেই লাগে মিষ্টি। মিষ্টিমুখ ছাড়া কোনো শুভকাজই যেন হয় না...

সারাদিন ল্যাপটপ বা ফোনের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে চোখের অসুবিধা...

২০২০ সাল আমরা সকলেই প্রায় ঘরে আটকে।কাজের জায়গাতেও "ওয়ার্ক ফ্রম হোম" , পড়াশুনার ...

পছন্দের লিপস্টিক এবার নিজেই ঠিক করে নিন :

লিপস্টিক, বহু মেয়ের কাছেই খুব পছন্দের একটি প্রসাধনী। যারা সাজতে ভালোবাসে না তারাও লিপস্টিক...

মাত্র একসপ্তাহেই ফিরে আসবে আবার আপনার ত্বকের জেল্লা!!কিভাবে?

ত্বকের জেল্লা ফিরিয়ে আনার জন্যে আমরা অনেকেই অনেক দামি প্রসাধনী ব্যবহার করে থাকি, সাথে...