HomeLife styleশীতের বাগান রঙিন রাখতে চান ??? রইল বেশ কিছু টিপস

শীতের বাগান রঙিন রাখতে চান ??? রইল বেশ কিছু টিপস

শীতকালে আপনার বাগান বা ব্যালকনি রঙিন রাখতে চান ? কিন্তু কি ফুল লাগাবেন বুঝতে পারছেন না ? তাহলে এই আর্টিকেলটা আপনার জন্য।বাগান রঙিন রাখতে বসাতে পারেন এই গাছ গুলি।রইল বিস্তারিত।

১. গাঁদা – শীতের বাগান ঠিক গাঁদা ছাড়া মানায় না।
শীতের ফুলের কথা মাথায় এলে সবার প্রথমেই যে ফুলটার নাম মাথায় আসে তা হচ্ছে গাঁদা ফুল। বাগানে হলদে কিংবা কমলা গাঁদার বিচরণ মনে যেন একটা আলাদাই আনন্দ নিয়ে আসে।

২. রজনীগন্ধা – বাগানকে রঙিনের পাশাপাশি স্নিগ্ধ ও সুগন্ধিময় রাখতে চাইলে বাগানে রাখতে পারেন রজনীগন্ধা। রজনীগন্ধার ম্যাচিউর বাল্ব থেকে এই সময়ে ফুল পাওয়া যায় অনেক। এই বাল্বগুলো থেকে পরবর্তীতে আরো বাল্ব হয়ে আরো ফুল দেয়।

৩. ডালিয়া – শীতের সবচেয়ে সুন্দর ফুল ডালিয়া। এর পাঁপড়িগুলোও হয় নানান রঙের এবং বৈচিত্রে ভরা। আপনার বারান্দা কিংবা ছাদ বাগানকে সুন্দর করে তুলতে চাইলে একপাশে ডালিয়াও লাগাতে পারেন।সূদঢ় মেক্সিকো থেকে এদেশে আসা এই ফুলটা সাধারণত সাইজের দিক থেকে একটু বড় হলেও এখন নতুন ভ্যারাইটির ছোট সাইজের ফুলের গাছও পাওয়া যায়।

৪. গোলাপ – এই সময়টাতে বাগানে রাখতে পারেন গোলাপ ,এই সময়টাতে বিভিন্ন জাতের গোলাপ ও পাওয়া যায়। যদিও গোলাপ সারা বছরই ফোটে। তাই বাগানের সৌন্দর্য বাড়াতে গোলাপ ছাড়া যেন অসম্পূর্ণ মনে হয়। আজকাল বিদেশী জাতের গোলাপ গুলিও বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বাগানিদের কাছে। তার মধ্যে রয়েছে এলিজাবেথ, জুলিয়াস রোজ, ব্ল্যাক প্রিন্স, ইরান, রোজ গুজার্ড ।

পাশাপাশি আরও যেসব ফুলগুলো বাগানে লাগাতে পারেন তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য চন্দ্রমল্লিকা,ডায়ান্থাস, লুপিন, কারনেশন, অ্যাস্টার, আইস প্ল্যান্ট, ক্যামেলিয়া, প্যান্সি, হলিহক, কামিনী, ভারবেনা, সিলভিয়া, ডেইজি, কসমস, ক্যালাঞ্চু, মর্নিং গ্লোরি, সূর্যমুখী, ক্যালেন্ডুলা, পিটুনিয়া, অ্যাজালিয়া, সন্ধ্যামালতি, মোরগঝুঁটি, গ্যাজানিয়া, সুইট পি, পর্তুলিকা, মেস্তা জবা, পপি ইত্যাদি।

তবে শুধুমাত্র গাছ লাগালেই হবে না কিছু বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে ,যেমন –

১. এমন জায়গায় গাছ লাগান যেখানে ভালো রোদ পাবে। তাতে গাছে ফুল আসে দ্রুত।

২. গাছের গোড়া ভেজা ভেজা থাকলে একদম জল দেবেন না । মাটি একেবারে শুকিয়ে গেলে জল দিন।

৩. গাছ একটু বড় হলে একটি খুঁটি দিয়ে বেধে রাখুন।

৪. ফুল শুকোতে ধরলে গাছ থেকে সঙ্গে সঙ্গে ছিড়ে ফেলুন বা কেটে ফেলুন।

৫. গাছে ফুল ফুটতে দেখা গেলে গাছের ডাল ,পাতায় জল দেবেন না।

৬. আপনি যদি সার না দেন তাহলে পনের বিশ দিন পরপর গাছের গোড়ায় খৈল পঁচা পানি দিন।

৭. নিয়মিত গাছে ডিটারজেন্ট মিশ্রিত পানি স্প্রে করা শুরু করুন। এতে গাছে পিঁপড়া, মিলিবাগ ও অন্যান্য পোকামাকড়ের সংক্রমন কম দেখা যাবে।

RELATED ARTICLES

আপনার কী কাঁধে (shoulders) এবং পিঠে (back) অসংখ্য জনক...

অনেক মানুষের কাঁধে (shoulders) এবং পিঠের (back) কাছে অসংখ্য জনক ডার্ক স্পর্টস (dark spots)...

১২ বছর পর পর ফোটে এই ফুল(Flower), জেনে নিন...

ফুল(Flower) ভালোবাসে না এমন মানুষ খুব কমই আছে। ভালোবাসার প্রকাশও ফুল(Flower) দিয়েই হয়। ফুল(Flower)...

কী ভাবে জাপানিদের (Japanese) স্কিন (skin) এতো সুন্দর হয়...

জাপানিদের (Japanese) স্কিন (skin) এত সুন্দর হওয়ার পেছনে রয়েছে কিছু স্বাভাবিক জিনিস যা আপনি...

ওজন কমাতে খাদ্যতালিকা থেকে ভাত বাদ দিচ্ছেন ! জেনেনিন...

আমাদের দেশের প্রধান খাদ্য ভাত । আমরা যাই খাই খাদ্যতালিকায় একটু হলেও ভাত রাখি...

কৈলাস পর্বতে স্যাটেলাইট লাগিয়ে কিদৃশ্য দেখে চমকে গেলেন নাসা...

কৈলাস পর্বতে র নাম সবার জানা হিন্দুদের মতে এই কৈলাস পর্বতে দেবাদিদেব মহাদেব বিরাজমান।...

জেনেনিন কিভাবে ওষুধ না খেয়ে ধূমপান ত্যাগ করবেন !!

সারা পৃথিবী জুড়ে বছরের পর বছর ক্যানসারে প্রান হারাচ্ছে কয়েক লক্ষ্যাধিক মানুষ। প্রতিদিন শেষ...