HomehistoryDevotionalকেন রাধাষ্টমী পালন করা হয় জানেন? না জানা থাকলে অবশ্যই পড়ুন!

কেন রাধাষ্টমী পালন করা হয় জানেন? না জানা থাকলে অবশ্যই পড়ুন!

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -

ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিনের পরই পালিত হয় রাধাষ্টমী

পুরাণ মাফিক ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টমী তিথিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন রাধা।

আর সেই দিন থেকে আজকের এই দিনটিকে রাধাষ্টমী বলেই পালন করা হয়।

বলা হয়, কোন এক সময় স্বয়ং সূর্যদেব পৃথিবীতে ভ্রমণ করতে আসেন।

এরপরই পৃথিবীতে সূর্যদেব এসে পৃথিবীর রূপে মুগ্ধ হন তিনি।

ঠিক তার পরই তিনি মন্দর পর্বতে গভীর তপস্যায় মগ্ন হয়ে থাকেন।

যেহেতু সূর্যদেব দীর্ঘদিন ধরে তপস্যায় মগ্ন ছিলেন সেই কারণে পৃথিবী অন্ধকারছন্ন হয়ে পরে।

সেই সময় সৃষ্টির রক্ষা করতে স্বর্গের সমস্ত দেবতা শ্রীকৃষ্ণের শরণাপন্ন হন।

সমস্ত স্বর্গের দেবতারা ভয়ে ভীত হয়ে শ্রীহরির কাছ থেকে সাহায্য চান।

এরপর শ্রীহরির সূর্যদেবের সামনে গিয়ে হাজির হন সেটিতে সূর্যদেব খুবই আনন্দিত বোধ করেন।

সেই মুহূর্তে সূর্যদেব শ্রীহরিকে বলে বসেন আপনার দর্শন পেয়ে আমার এই তপস্যা সফল হল।

সেই সময় যখন শ্রীকৃষ্ণ তাঁকে বর দিতে যায়,

এরপরই সূর্যদেব বর হিসেবে চান তাকে এমন একটি গুণবতী কন্যার বর দিতে যার কাছে সর্বদা শ্রীকৃষ্ণ বশীভূত থাকবেন।

যথারীতি শ্রীকৃষ্ণ তাঁকে সেই বরই প্রদান করেন।
শ্রীহরি বলেন,

“এবার বৃন্দাবনের নন্দালয়ে পৃথিবীর সমস্ত বোঝা কমাতে আমি জন্মগ্রহণ করব।

তুমি সেখানে বৃষভানু রাজা হয়ে জন্মগ্রহণ করবে।

এবং শ্রীরাধা তোমার কন্যারূপে জন্মগ্রহণ করবে।

এই সমস্ত ত্রিলোক জুড়ে আমি শুধুমাত্র শ্রীরাধিকারই বশীভূত থাকবো।

রাধিকা এবং আমার মধ্যে কোনো রকমের প্রভেদ থাকবে না।

আমি হয়তো সমস্ত মানুষকে আকর্ষণ করে থাকি কিন্তু রাধিকাই হবে এমন একজন যে শুধুমাত্র আমাকে আকর্ষণ করবে।”

যথারীতি অনুযায়ী শ্রীকৃষ্ণ জন্মগ্রহণ করেন নন্দালয়ে।

অন্যদিকে সূর্যদেব বৃষভানু রাজা রূপে বৈশ্যকুলে জন্মগ্রহণ করেন।

এরপর তিনি গোপকন্যা কীর্তিদার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

তারপরই ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টমী তিথিতে ধরিত্রীকে প্রবিত্র করে কীর্তিদার গর্ভে শ্রীমতি রাধারানী জন্ম নেন।

এই রাধারানীর জন্ম হয় দিনটিকে রাধাষ্টমী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

এই রাধাষ্টমীর দিনে ব্রত পালন সম্পর্কিত তথ্য ভগবত গীতা এবং পুরানে বলা হয়েছে,

যে সমস্ত ব্যক্তি একবার হলেও এই ব্রত পালন করবে তার কোটি জন্মের ব্রহ্ম হত্যার মতন সমস্ত মহাপাপ বিনষ্ট হবে।

শত শত একাদশী ব্রত পালন করে যে সমস্ত ফল লাভ হয়,

সেই তুলনায় রাধাষ্টমী ব্রত পালন করলে শতাধিকের বেশি ফল লাভ হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন : না শ্মশান, না কবরস্থান! তাহলে পতিতা-নারীর দেহকে মৃত্যুর পর কি করা হয়?

- Advertisement -

Must Read

“বেকড মিহিদানা”, এবারে বাড়িতেই বসে তৈরি করে নিন দোকানের মত এই মিষ্টির স্বাদ!!

খাঁটি বাঙালি মানেই মিষ্টি তার প্রিয় খাদ্য। মাছ থেকে মাংস যত পঞ্চব্যঞ্জন রান্না করে দেওয়া হোক না কেন শেষপাতে বাগানের মিষ্টি চাই। সামনে আসতে...